সার্জেন্টের আপ্রাণ চেষ্টা, তবুও বাঁচানো গেল না তাকে

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট), দুপুর ১টা। দুলু মিয়া (৪৫) নামের এক পথচারী মাটিতে লুটিয়ে পড়লেন। কারণ, তাকে সজোরে ধাক্কা দিয়ে চলে গেছে একটি সিএনজি।

পাশেই দায়িত্বরত সার্জেন্ট তারিকুল ইসলামের চোখে হঠাৎই ধরা পড়ল ঘটনাটি। সঙ্গে সঙ্গে এগিয়ে গেলেন ট্রাফিক পূর্ব বিভাগের এই সার্জেন্ট। ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর রায়েরবাগে।

তারিকুল ইসলাম তখন ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়া একটি গাড়ি থামান। চালককে অনুরোধ করেন দুলু মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য। সার্জেন্টের অনুরোধ ফেলতে পারেননি ওই অচেনা চালক। গুরুতর আহত ওই ব্যক্তিকে গাড়িতে নিয়ে যান ঢামেকে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। বাঁচানো গেল না দুলু মিয়াকে। ঢামেক হাসপাতালে নেয়ার পর বেলা দেড়টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন দায়িত্বরত চিকিৎসকরা।

নিহত দুলু মিয়া রংপুরের কোতোয়ালি উপজেলার পাগলাপীর গ্রামের বাসিন্দা। বর্তমানে রায়েরবাগ এলাকায় একটি রিকশার গ্যারেজে থাকতেন তিনি। চালাতেন ভ্যান।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

সার্জেন্ট তারিকুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, দুর্ঘটনার পরপরই তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে পাঠাই। শুনলাম সে আর বেঁচে নেই। খুব খারাপ লাগছে। ঘটনার সময় সিএনজিটি ধরতে না পারলেও আমি ওয়ারলেসে নোট দিয়েছি।

দুলুর আত্মীয় আবদুল জলিল জানান, দুলু মিয়া ওই এলাকায় থাকতো এবং ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। রায়েরবাগ ফুটওভার ব্রিজের নিচের রাস্তা পারাপারের সময় একটি দ্রুতগামী সিএনজি তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *